নেত্রকোনার পূর্বধলায় তুচ্ছ ঘটনায় প্রতিপক্ষের কিল, ঘুষি, লাথির আঘাতে সালেমা আক্তার (৩৫) নামে এক গৃহবধু চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

নিহত সালেমা আক্তার উপজেলার জারিয়া ইউনিয়নের বারহা গ্রামের আব্দুল বারেকের স্ত্রী। তিনি দুই সন্তানের জননী ছিলেন।

নিহতের ভাসুর মো: সাদেক মিয়া বলেন, গত সোমবার সালেমার ছেলের অন্যান্য শিশুদের ঝগড়া হয়। এসময় হেলাল মিয়ার শাহীন তাকে মারধের করে।

ওইদিন সন্ধ্যায় ছেলেকে নিয়ে সালেমা মারধরের বিচার চাইতে যান একই গ্রামের হেলালের বাড়ীতে। এসময় হেলালের মিয়ার স্ত্রীসহ তার পরিবারের লোকজন তাকে কিল, ঘুষি ও লাথি মারে। এতে মারাত্মক আহত হন তিনি।

পরে পূর্বধলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিল। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারী) ময়মনসিংহ রেফার্ড করেন চিকিৎসক। যাওয়ার পথে অবস্থার অবনতি হলে নিজ বাড়ীতে রাতেই মারা যান তিনি।

পূর্বধলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাশেদুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় ৪জনকে আটক করা হয়েছে। লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো পড়ুন : বিজয় মিছিলে হামলায় নিহতের ঘটনায় মামলা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *