G-P4YRF2NDHL G-P4YRF2NDHL
Thursday, June 13, 2024
Google search engine
Home Blog Page 4

নেত্রকোনায় প্রত্যাশা সাহিত্য গোষ্ঠীর ৪২ বছর পূর্তি উৎসব পালিত

0
নেত্রকোনায় প্রত্যাশা সাহিত্য গোষ্ঠীর ৪২ বছর পূর্তি উৎসব পালিত

“সত্য ও সুন্দর জীবনের প্রত্যাশা” এই শ্লোগানে নেত্রকোনায় দু’দিনব্যাপী “প্রত্যাশা সাহিত্য গোষ্ঠী’র ৪২ বছর পূর্তি উৎসব” শুরু হয়েছে।

সোমবার (১৫ জানুয়ারী) সকালে নেত্রকোণার উকিলপাড়ায় প্রত্যাশা সাহিত্য গোষ্ঠী কার্যালয়ে কেক কেটে উৎসবের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক শাহেদ পারভেজ।

প্রত্যাশা সাহিত্য গোষ্ঠীর সভাপতি দেবাশীষ সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পুলিশ সুপার মোঃ ফয়েজ আহমেদ, পৌরসভার বীর মুক্তিযোদ্ধা মেয়র নজরুল ইসলাম খান সহ জেলার শিল্প-সাহিত্য-সংস্কৃতি অঙ্গনের কর্মীরা।

পরে প্রত্যাশা সাহিত্য গোষ্ঠী কার্যালয় থেকে একটি বর্ণাঢ্য রেলি বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে এসে শেষ হয়।

আরো পড়ুন : প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী বক্তব্য : শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা

প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী বক্তব্য, শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা

0
প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী বক্তব্য, শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নেত্রকোনার বারহাট্টায় প্রার্থীর পক্ষে ভোটের প্রচারণা সভায় বক্তব্য দেওয়ায় একজন প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করেছে কর্তৃপক্ষ।

অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম এস এম সাজ্জাদুল হক (সবুজ)। তিনি বারহাট্টা উপজেলার সিংধা ইউনিয়নের আশিয়ল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদে কর্মরত আছেন।

সোমবার বারহাট্টা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে গত ১১ ডিসেম্বর মামলার বিষয়ে কাগজপত্র উপজেলা শিক্ষা কার্যালয়ে এসে পৌছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ৬ ডিসেম্বর নেত্রকোনা-২ (সদর-বারহাট্টা) আসনে ইসলামী ঐক্যজোটের প্রার্থী মো. ইলিয়াসের বাড়ি বারহাট্টা উপজেলার নুরুল্লার চর গ্রামে এক নির্বাচনী সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে এলাকার লোকজনসহ তার কর্মী-সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন। এতে ইলিয়াসের পক্ষে বক্তব্য প্রদানকালে কাজ করার জন্য সবাইকে আহ্বান জানান শিক্ষক সাজ্জাদুল হক সবুজ।

ওই নির্বাচনী সভায় উপস্থিত এলাকাবাসীর উদ্দেশে তাকে বলতে শোনা যায়, ‌‘ইলিয়াস (ইসলামী ঐক্যজোটের প্রার্থী) খুব ভালো ছেলে। তাকে ধরে রাখতে হবে। ইলিয়াসের জন্য সবাই কাজ করবেন।’

ওই বক্তব্যর ভিডিও জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহেদ পারভেজের নজরে আসে। পরে এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে নেত্রকোনা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন তিনি। এ ঘটনায় প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের উপপরিচালক, জেলা শিক্ষা শিক্ষা কর্মকর্তা ও বারহাট্টা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আলাদা ভাবে তিনটি শোকজ করা হয় ওই শিক্ষককে।

এছাড়াও ঘটনার প্রেক্ষিতে বিভাগীয় তদন্ত করা হয়। পরে তদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর অভিযুক্ত শিক্ষক সাজ্জাদুল হকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করেন বিভাগীয় উপ-পরিচালক ।

তবে মামলার কাগজ পৌছার আগেই অসুস্থতার জন্য এক মাসের ছুটির আবেদন করে বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকেন শিক্ষক এসএম সাজ্জাদুল হক। এমনকি অফিসের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখেননি তিনি।

এদিকে নির্বাচনী উঠান বৈঠকে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেওয়ার বিষয়টি ইসলামী ঐক্যজোটের প্রার্থী মো. ইলিয়াস নিশ্চিত করলে অভিযুক্ত শিক্ষকের দাবি- ওই সভায় থাকা এক হুজুরের কাছ থেকে তিনি বাচ্চাদের জন্য তাবিজ আনতে গিয়েছিলেন। কোন নির্বাচনী বক্তব্য দেননি।

উপজেলার অন্তত এক ডজন প্রধান শিক্ষক জানিয়েছেন, সাজ্জাদুল হক এর আগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে অশালীন আচরণ করে বরখাস্ত হয়েছেন। ধর্ষণ মামলায় জেলহাজত খেটেছেন। হত্যা মামলার আসামি হয়েছেন। এমনকি প্রতারণা সহ অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। কিন্তু এসবে তাঁর কিছুই হয়নি। উল্টো প্রমোশন হয়েছে। দূর সম্পর্কের এক কর্মকর্তার আশকারায় সাজ্জাদুল হক বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

বারহাট্টা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম বলেন, শিক্ষক সাজ্জাদুল হক কখনো কোন চিঠি রিসিভ করেন না। এখনো তাঁকে পাওয়া যায়নি। ফোন দিলে রিসিভ করেন না। তাই মামলার কাগজপত্র ওই স্কুলের একজন সহকারী শিক্ষক রিসিভ করে নিয়েছেন। সাজ্জাদুল হক অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে এক মাসের ছুটিতে চলে গেছেন। এ বিষয়ে বিভাগীয় কর্মকর্তার কাছে প্রতিবেদন পাঠানো হবে। পরে তিনি এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন।

আরো পড়ুন : দুর্গাপুরে প্রতিপক্ষের হামলার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলণ

দুর্গাপুরে প্রতিপক্ষের হামলার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

0
দুর্গাপুরে প্রতিপক্ষের হামলার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছে সদর ইউনিয়নের উওর ভবানীপুর গ্রামের ব্যবসায়ী জালাল উদ্দিন।

সোমবার বিকেলে প্রেসক্লাব মিলনাতয়নে একই ইউনিয়নের আগারপাড়া গ্রামের সাদেক মিয়া, আব্দুল জলিল, সুমন মিয়া, শাকিল মিয়া, আরজ আলীর উপর নানা অভিযোগ এনে এ সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে জালাল মিযা বলেন, গত ১৩ জানুয়ারী শনিবার সন্ধ্যায় আমি আমার বাড়ীর পাশের কার্তিক হাজং এর মুদি দোকানে বসেছিলাম। ওই সময়ে সাদেক মিয়া মদ্যপ অবস্থায় আমাকে অকথ্য অশ্লীল ভাষায় গালাগাল করে এলোপাথারী কিল ঘুষি মারতে থাকে। পরে উপস্থিত জনতা ফিরাইয়া দিলে আমি বাসায় চলে আসি। এরপর সাদেক মিয়া, আব্দুল জলিল, সুমন মিয়া কার্তিক হাজংয়ের দোকানের সামনে রাখা আমার মোটর সাইকেল এর হেডলাইট, ট্যাংকি ভাংচুর করে। পরে অভিযুক্ত সকলেই দল-বল সহ লাঠি-শোঠা হাতে নিয়ে আমার বসতবাড়িতে প্রবেশ করলে আমি আত্মরক্ষায় বসতঘরের ভিতর চলে যাই।

এ সময় আমার স্ত্রী প্রতিবাদ করলে সাদেক মিয়া আমার স্ত্রী‘র চুলের মুঠি ও পড়নের কাপড় ধরিয়া টানা হেচড়া করে। ওই সময় আমার পুত্রা ও ভ্রাতা এসে ফিরাইলে চাইলে তাদেরকে মারপিট করে অভিযুক্তরা। তাদের মারপিটে ৫/৬ জন গুরুতর আহত হয়। পরে তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে আল-আমিনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ হাসপাতালে প্রেরন করে কর্তব্যরত চিকিৎসক। অভিযুক্তরা আমার বাসা থেকে বের হওয়ার সময় আমাদের কে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে যাই। আমি প্রশাসনের মাধ্যমে অভিযুক্তদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, এলাকাবাসী মো. আবুল কাশেম, মো. আজিম উদ্দিন, মো. আইন উদ্দিন, মো. ইসরাফিল, মো. রতন মিয়া প্রমুখ।

এ গন্ডগোলের বিষয়ে অভিযুক্ত সাদেক মিয়া ও তার সঙ্গীদের মুঠোফোনে বারংবার যোগাযোগ করা হয়ে, তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

আরো পড়ুন : দুর্গাপুরে সরিষা চাষে ভাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

দুর্গাপুরে সরিষা চাষে ভাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

0

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে গত বছরের তুলনায় এ বছর সরিষার আবাদ অনেকটা বেড়েছে। ভাম্পার ফলনের আশা করছেন কৃষকরা। গত ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে ৩২০ হেক্টরে সরিষার আবদ হয়েছিল।

এ বছর প্রায় ৫শত হেক্টরে সরিষার আবাদ করা হয়েছে। গত বছরের তুলনায় এ বছর প্রায় ১শত হেক্টর বেশি জমিতে সরিষা উৎপাদিত হবে।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করে জানা গেছে, চলতি অর্থবছরে দুর্গাপুর উপজেলার প্রায় সব ইউনিয়নেই ২হাজার ৫শ জন কৃষককে বিনামূল্যে প্রণোদনার সরিষা বীজ ও সার বিতরণ করা হয়েছে। প্রত্যেক কৃষককে ১ কেজি করে সরিষার বীজ, ১০ কেজি করে ডিএপি ও ১০ কেজি করে এমওপি সার প্রদান করা হয়।

কৃষি প্রনোদনা দেয়ার কারণে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় সরিষার আবাদ বৃদ্ধি পেয়েছে। এ বছর সরিষার ফলনও বেশি হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এতে ভোজ্যতেলর আমদানী নির্ভরতা কিছুটা হলেও কমবে। সেইসাথে কৃষক সরিষার ভালো দাম পেয়ে লাভবানও হবেন।

দুর্গাপুর ইউনিয়নের বারমারি, ভবানীপুর, কুল্লাগড়া ইউনিয়নের বিজয়পুর, বামনপাড়া, কাকড়াকান্দা, গাওকান্দিয়া ইউনিয়নের জাগিরপাড়া, নাওদাড়া চন্ডিগড় ইউনিয়নের নোয়াগাও, ফুলপুর, কেরণখলা, ফেঁচিয়া গ্রামের কৃষকগণ সরিষা আবাদ করেছেন।

কৃষক হযরত বেপারি বলেন, কৃষি বান্ধব সরকারকে ধন্যবাদ জানাই আমাদের প্রনোদনা দেয়ার জন্য। আমরা বিনামুল্যে সার, বীজ পাওয়ায় সরিষা আবাদে আগ্রহ হয়েছি। শুধু তাই নয়, সামনের মৌসুম থেকে আমাদের এলাকার কৃষকগণ মধু চাষেও আগ্রহ প্রকাশ করবে।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মাঠ কর্মকর্তা কামরুজ্জাসান জানান, এ বছর আবহাওয়া সরিষা আবাদের অনুকুলে ছিল। তাই বিভিন্ন এলাকার কৃষকগণ সরিষার আবাদে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। আশ-পাশের কিছু কৃষক মৌ চাষের মাধ্যমে মধু সংগ্রহতেও আগ্রহী হয়েছে। ক্ষেতে পোকা-মাকড়ের আক্রমন হয়নি। প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে, সরিষার বাম্পার ফলন হবে বলে ধারণা করছেন কৃষকরা।

দুর্গাপুর উপজেলা কৃষি অফিসার নিপা বিশ্বাস জানান, এ বছর দুর্গাপুর উপজেলায় প্রায় ৫শত হেক্টরে সরিষার আবাদ করা হয়েছে। গত বছরের তুলনায় এ বছর প্রায় ১শত হেক্টর বেশি জমিতে সরিষা আবাদ করা হয়েছে। সরিষাদ পাশাপাশি মাল্টা চাষেও বাম্পার ফলন হয়েছে দুর্গাপুরে। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সব সমই কৃষকদের পাশে থেকে এ বিষয়ে পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছে।

আরো পড়ুন : বিচার চাইতে গেলে প্রতিপক্ষের কিল-ঘুষিতে গৃহবধু নিহত

বিচার চাইতে গেলে প্রতিপক্ষের কিল-ঘুষিতে গৃহবধু নিহত

0

নেত্রকোনার পূর্বধলায় তুচ্ছ ঘটনায় প্রতিপক্ষের কিল, ঘুষি, লাথির আঘাতে সালেমা আক্তার (৩৫) নামে এক গৃহবধু চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

নিহত সালেমা আক্তার উপজেলার জারিয়া ইউনিয়নের বারহা গ্রামের আব্দুল বারেকের স্ত্রী। তিনি দুই সন্তানের জননী ছিলেন।

নিহতের ভাসুর মো: সাদেক মিয়া বলেন, গত সোমবার সালেমার ছেলের অন্যান্য শিশুদের ঝগড়া হয়। এসময় হেলাল মিয়ার শাহীন তাকে মারধের করে।

ওইদিন সন্ধ্যায় ছেলেকে নিয়ে সালেমা মারধরের বিচার চাইতে যান একই গ্রামের হেলালের বাড়ীতে। এসময় হেলালের মিয়ার স্ত্রীসহ তার পরিবারের লোকজন তাকে কিল, ঘুষি ও লাথি মারে। এতে মারাত্মক আহত হন তিনি।

পরে পূর্বধলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিল। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারী) ময়মনসিংহ রেফার্ড করেন চিকিৎসক। যাওয়ার পথে অবস্থার অবনতি হলে নিজ বাড়ীতে রাতেই মারা যান তিনি।

পূর্বধলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাশেদুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় ৪জনকে আটক করা হয়েছে। লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো পড়ুন : বিজয় মিছিলে হামলায় নিহতের ঘটনায় মামলা

বিজয় মিছিলে হামলায় নিহতের ঘটনায় মামলা : আটক এক

0

নেত্রকোনা-৩ (কেন্দুয়া-আটপাড়া) আসনে আটপাড়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর বিজয় মিছিলে হামলায় এক যুবক নিহতের ঘটনায় ১৮ জনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এ ঘটনায় সাখাওয়াত হোসেন বারী নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত বারী লুনেশ্বর ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য।

নিহত নূরুল আমিন আটপাড়া উপজেলার লুনেশ্বর ইউনিয়নের দেওগাঁও গ্রামের কাজিম উদ্দিনের ছেলে। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী ইফতিকার উদ্দিনের সমর্থক ছিলেন।

বুধবার (১০ জানুয়ারী) রাতে নিহতের ভাই সোহাগ হাসান বাদী হয়ে আটপাড়া থানায় মামলাটি করেন। এতে লুনেশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান, যুবলীগ সদস্য জুনায়েদ, সাখাওয়াত হোসেন বারীসহ ১০জনের নামোল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৮ জনকে আসামি করা হয়েছে।

আটপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ তাওহীদুর রহমান বলেন, ‘দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিন ভোট শেষে রাতে ট্রাক প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকরা দেওগাঁও বাজারে বিজয় মিছিল করে। এসময় নৌকার সমর্থকেরা মিছিলে হামলা চালালে নূরুল আমিনসহ অন্তত ১২ জন আহত হন। পরদিন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নূরুল আমিনের মৃত্যু হয়।’

ওসি আরো বলেন, গ্রেপ্তারকৃত বারীকে নেত্রকোনা আদালতে পাঠানো হয়েছে। মামলার অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হচ্ছে।

আরো পড়ুন : কে কোন মন্ত্রীর দায়িত্ব পেলেন

কে কোন মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব পেলেন

0

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার পর টানা চতুর্থবারের মতো মন্ত্রিসভা গঠন করেছে আওয়ামী লীগ।

বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টার দিকে বঙ্গভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ গ্রহণ করেন।

রাষ্ট্রপতি মোঃ সাহাবুদ্দিন তাদেরকে শপথবাক্য পাঠ করান।

এর আগে বুধবার (১০ জানুয়ারি) বিকেলে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের তালিকা প্রকাশ করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব মাহবুব হোসেন মন্ত্রিসভার সদস্যদের নাম ঘোষণা করেন।

শপথ গ্রহণের পর নতুন মন্ত্রীদের দায়িত্ব বণ্টন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার মন্ত্রিসভার সদস্যদের মধ্যে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব বণ্টন করেছেন।

কে কোন মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব পেলেন:

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ; প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়; সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ; বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়, সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিয়েছেন।

পূর্ণ মন্ত্রী হিসেবে অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন যথাক্রমে আ ক ম মোজাম্মেল হক মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়; ওবায়দুল কাদের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়; আবুল হাসান মাহমুদ আলী অর্থ মন্ত্রণালয়; আনিসুল হক আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয়; নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন শিল্প মন্ত্রণালয়; আসাদুজ্জামান খান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়; মো. তাজুল ইসলাম স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়; মুহাম্মদ ফারুক খান বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়; মোহাম্মদ হাছান মাহমুদ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়; ডা. দীপু মনি সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, সাধন চন্দ্র মজুমদার খাদ্য মন্ত্রণালয়; আব্দুস সালাম পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়; মো. ফরিদুল হক খান ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়; ইয়াফেস ওসমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এবং সামন্ত লাল সেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন যথাক্রমে নসরুল হামিদ বিদ্যুৎ বিভাগ; খালিদ মাহমুদ চৌধুরী নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়; জুনাইদ আহমেদ পলক ডাক, টেলি যোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়, জাহিদ ফারুক পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়; সিমিনি হোসেন রিমি মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়; কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়; মো. মহিববুর রহমান দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়, মোহাম্মদ আলী আরাফাত তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়; শফিকুর রহমান চৌধুরী প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়; বেগম রুমানা আলী প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং আহসানুল ইসলাম (টিটু) বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

দুর্গাপুরে ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

0
দুর্গাপুরে ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে বালুবাহী ট্রাক চাপায় আশরাফুল মিয়া (২২) নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন।

বুধবার (১০ জানুয়ারী) রাতে দুর্গাপুর-শ্যামগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের উপজেলার নোয়াপাড়া নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত মোটরসাইকেল আরোহী উপজেলার বিরিশিরি ইউনিয়নের পলাশকান্দি গ্রামের রইছউদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নোয়াপাড়া এলাকায় সড়কের ওপর ট্রাক রেখে আশরাফুর বালু লোড করা দিচ্ছিল। এসময় ট্রাকের পাশ দিয়ে মোটরসাইকেলটি যাওয়ার সময় বালুবাহী অপর একটি ট্রাক পেছন দিক থেকে মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ট্রাকের চাপায় ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেলের চালক মারা যান। এ ঘটনায় স্থানীয়রা ট্রাকটি আটকে রাখতে পারলেও চালক পালিয়ে যান।

দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উত্তম চন্দ্র দেব জানান, ‘দুর্ঘটনা ঘটানো ট্রাকটি পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। লাশ বিনা ময়নাতদন্তে নিয়ে গেছে পরিবার এবং মামলা করলে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

আরো পড়ুন : ঘুমন্ত শিশুকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় আটক দুই

ঘুমন্ত শিশুকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় র‍্যাবের হাতে দুইজন আটক

0

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় মায়ের কোলে ঘুমন্ত শিশুকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় মূলহোতাসহ দুই আসামীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৪।

আজ বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারী) ভোর ৪টার দিকে কলমাকান্দা থানার কুট্টাকান্দা গ্রাম থেকে তাদের গ্রেফতার করে র‌্যাব।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে-কলমাকান্দা উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামের মো: হাতেম আলী ছেলে মোঃ হানিফ মিয়া (২৭) এবং একই গ্রামের সিরাজ আলীর ছেলে মোঃ ফারুক মিয়া (২২)।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ময়মনসিংহ র‌্যাব-১৪-এর অপারেশনস্ অফিসার উপ-পরিচালক মোঃ আনোয়ার হোসেন ই-মেইল বার্তায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি আরো জানান, জেলার কলমাকান্দা থানাধীন খারনৈ ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর গ্রামের বাদী আব্দুল মালেক ও প্রতিবেশী আসামি হাতেম আলীর মধ্যে জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে বিজ্ঞ আদালতে কয়েকটি মামলা চলমান আছে।

গত ২০২৩ সালের ৩১ ডিসেম্বর দুপুর অনুমান দেড়টার সময় আসামিরা বাদীর বাড়ির দক্ষিণ পাশে পুকুর পাড়ে থাকা বাদীর কলা গাছের ছড়ি কেটে নিয়ে যাওয়ার সময় বাদীর স্ত্রী মোছাঃ মোমেনা খাতুন বাঁধা নিষেধ করেন। এতে আসামিরা ক্ষিপ্ত হয়ে বাদীর স্ত্রীকে গালিগালাজ শুরু করে। এক পর্যায়ে আসামিরা কাঠের রুল দিয়ে বাদীর স্ত্রী মোছাঃ মোমেনা খাতুনের মাথায় আঘাত করে।

বাদীর স্ত্রীকে আঘাত করাকালে তার কোলে থাকা আড়াই বছরের শিশু ভিকটিম জুনাইদের মাথায় আঘাত লাগে। এতে ভিকটিম শিশু জুনাইদ বমি ও পায়খানা করা শুরু করেন। পরে শিশু জুনাইদ‘কে হাসপাতালে নেওয়ার সময় ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা মোঃ আব্দুল মালেক ওইদিন ৪ জনসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪ জনকে আসামী করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। যাহার মামলা নং-১৭, তারিখঃ ৩১/১২/২০২৩খ্রি., ধারাঃ-১৪৩/৪৪৭/৩২৩/৩০২/১১৪ পেনাল কোড ১৮৬০। উক্ত ঘটনার পর থেকে আসামিরা তাদের নিজ বাড়ি ত্যাগ করে গা ঢাকা দিয়ে ছদ্মবেশে পলাতক ছিল।

এরই প্রেক্ষিতে বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ ও বিশ্লেষণের মাধ্যমে অধিনায়ক র‌্যাব-১৪, ময়মনসিংহ মহোদয়ের নির্দেশক্রমে র‌্যাব-১৪, সদর ব্যাটালিয়নের অপারেশনস্ অফিসার উপ-পরিচালক মোঃ আনোয়ার হোসেন-এর নেতৃত্বে একটি আভিযানিক দল অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করা হয়। আসামিদেরকে কলমাকান্দা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

র‌্যাব আরো জানায়, র‌্যাব তার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে জঙ্গি ও সন্ত্রাস, মাদক, অস্ত্র, অপহরণ, হত্যা, নারী নির্যাতন ও ধর্ষণসহ বিভিন্ন প্রকার অবৈধ কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে আপোষহীন অবস্থানে থেকে কাজ করে যাচ্ছে। যা দেশের সর্বস্তরের জনসাধারণ কর্তৃক ইতোমধ্যেই বিশেষ ভাবে প্রশংসিত হয়েছে। র‌্যাব-১৪ এর দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় বিভিন্ন হত্যা সংক্রান্ত অপরাধ কর্মকান্ড দমনের লক্ষ্যে র‌্যাব ফোর্সেস অত্যন্ত পেশাদারিত্বের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে হত্যার মত জঘন্য কাজ থেকে সমাজ তথা দেশকে বাঁচাতে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে।

আরো পড়ুন : এম্বুলেন্স চালকের সাথে দর কষা-কষাতে প্রাণ গেল নবজাতকের

নেত্রকোনায় কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কোর্সের সমাপনী অনুষ্ঠান

0

নেত্রকোনায় ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরের ১ম (৫১তম) ব্যাচের “কম্পিউটার বেসিক এন্ড আইসিটি এপ্লিকেশন ” বিষয়ক ০৬ মাস মেয়াদী প্রশিক্ষণ কোর্সের সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার দুপুর ১২টায় সাকুয়াস্থ যুব ভবনের হল রুমে জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর এই সমাপনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ পরিচালক পারজানা পারভীন এর সভাপতিত্বে প্রশিক্ষণার্থী কমল দাসের সঞ্চালনায় সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নেত্রকোনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক ) রাফিকুজ্জামান।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের কো অর্ডিনেটর অরুনাভ দেবনাথ। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, নেত্রকোনা সদর উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা গাজী মোবারক হোসেন, কম্পিউটার প্রশিক্ষক এস এম শহিদুল্লাহ, সহকারী প্রশিক্ষক হুসাইন মোহাম্মদ শাহীন, প্রশিক্ষণার্থী সৈয়দা স্বর্ণা ও আরিফুল ইসলাম।

প্রশিক্ষণ কোর্সে ৫৬ জন প্রশিক্ষণার্থী কম্পিউটার বেসিক এন্ড আইসিটি এপ্লিকেশন বিষয়ক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে।

সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি রাফিকুজ্জামান বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মানে স্মার্ট নাগরিক প্রয়োজন। এই জন্য যুব সমাজকে স্মার্ট হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। আজকের যুব সমাজ আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। আপনারা যারা যুব উন্নয়ন থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। আপনারা আপনাদের প্রশিক্ষণ লব্ধ জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে ডিজিটাল ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন।

নেত্রকোনা জেলা সংবাদদাতা :

G-P4YRF2NDHL